জেলা

মনোনয়ন পত্র জমা দিলেন তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী তথা বিদায়ী সাংসদ শতাব্দী রায়

কৌশিক সালুই, বীরভূম ৫ এপ্রিল:- নিজেকে ১০০ নাম্বার দিলেও তার প্রতিপক্ষ দেরকে ১০ নাম্বার ও দিলেন না। বীরভূম লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী তথা বিদায়ী সাংসদ শতাব্দী রায় মনোনয়ন পত্র জমা দিতে এসে তার রাজনৈতিক প্রতিপক্ষের এমনই মূল্যায়ন করলেন এবারের নির্বাচনে। অন্যদিকে বোলপুর লোকসভা কেন্দ্রে তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী অসিত মালও তার প্রার্থীপদ দাখিল করলেন। শতাব্দী রায়ের সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন মন্ত্রী আশীষ বন্দোপাধ্যায় এবং অসিত মালের সঙ্গে ছিলেন জেলার আর এক মন্ত্রী চন্দ্রনাথ সিনহা।

বীরভূম জেলার ২ কেন্দ্রের  তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থীরা শুক্রবার সিউড়ি জেলাশাসক কার্যালয়ে মনোনয়ন পত্র দাখিল করেন। ৪২ বীরভূম লোকসভা কেন্দ্রে প্রার্থী জেলা শাসকের কাছে এবং ৪১ বোলপুর কেন্দ্রের প্রার্থী অতিরিক্ত জেলা শাসক উন্নয়ন এর কাছে মনোনয়নপত্র জমা করেন। এই মনোনয়ন পর্ব কে কেন্দ্র করে সিউড়ির শহরে তৃণমূল কর্মী-সমর্থকদের উৎসাহ ছিল চোখে পড়ার মতো। এদিন শতাব্দী রায়ের সঙ্গে বাবা শৈলেন রায় এবং মা লালিমা রায় সিউড়ি শহরে আসেন। যদিও নিয়মের গেরোয় তারা জেলা শাসকের  কার্যালয়ে যেতে পারেননি । শতাব্দী রায় এদিন সাঁইথিয়ার সতীপীঠ নন্দিকেশ্বরী মন্দিরে এবং সিউড়ি শহরে রক্ষাকালী মন্দিরে পুজো দিয়ে মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। ওই পর্ব শেষ হওয়ার পর শতাব্দি পাথর চাপুরীর দাতাবাবা মাহবুব শাহ এর মাজার শরীফে গিয়ে চাদর চাপান এবং প্রার্থনা করেন। অন্যদিকে বোলপুর কেন্দ্রের প্রার্থী অসিত মাল তারাপীঠে মা তারার মন্দির এ পুজো দিয়ে সিউড়িতে আসেন মনোনয়ন পত্র দাখিল করার জন্য। শতাব্দী রায় সাংবাদিকদের দ্বিতীয় কে হবে এই প্রশ্নের উত্তরে জানান, ‘আমি যদি ১০০ হয় তাহলে আমার বিরোধীরা মাত্র ১০।’ যদিও তিনি তার মূল প্রতিপক্ষকে সেটা তিনি বলেননি।

Show More

Related Articles

error: Content is protected !!
Close
Close

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker
WhatsApp us