দেশপ্রথম পাতাব্রেকিং নিউস

ন্যাশনাল গঙ্গা কাউন্সিলের সভাপতি মোদি আড়াই বছরে কোনও মিটিং করেননি, অধরা দূষণহীন গঙ্গা

­ স্বচ্ছ ভারতের মিশন নিয়ে দেশজুড়ে ঝাঁটা হাতে ঝড় তুলেছিলেন। দেশের জনগণের কাছে (ভোটারদের কাছেও) অঙ্গীকার করেছিলেন পবিত্র গঙ্গাকে ‘বিশুদ্ধ’ করবেন। সেইমতো নবগঠিত ন্যাশনাল গঙ্গা কাউন্সিলের দায়িত্ব নিয়েছিলেন নিজেই। কিন্তু ‘আচ্ছে দিন’ ও ১৫ লাখ টাকার মতো এটাও প্রতিশ্রুতিই রয়ে গেল, একবারও মিটিং হল না কাউন্সিলের। এগোলো না গঙ্গা-শোধনের প্রক্রিয়াও। সম্প্রতি একটি আরটিআইয়ের জবাবে এই তথ্য জানা গেছে। বিধি মোতাবেক, ন্যাশনাল গঙ্গা কাউন্সিলের মিটিং বছরে একবার হতেই হবে।

এই কাউন্সিল গঠিত হয়েছিল ২০১৬-র অক্টোবরে। গঙ্গার পানিকে স্বচ্ছ– সংরক্ষণ ও রক্ষা ছাড়াও সুপরিকল্পিত উপায়ে ব্যবহার করাই ছিল এই কাউন্সিল গঠনের উদ্দেশ্য। ২০১৬-র ৭ অক্টোবর জলসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রকের তরফে একটি বিবৃতি দিয়ে জানানো হয় হয়, এনজিসি বছরে এক কিংবা একাধিকবার মিটিংয়ের জন্য বসবে। এবার এই মন্ত্রকের অধীন সংস্থা ‘ক্লিন গঙ্গা মিশন’ আরটিআইয়ের উত্তরে জানিয়ে দিল যে– দু’বছরের অধিক সময় পার হয়ে গেছে, কেউ কথা রাখেনি। এনজিসির কোনও মিটিং হয়নি। কাউকে সভায় ডাকেননি প্রধানমন্ত্রী ও এই কাউন্সিলের সভাপতি নরেন্দ্র মোদি। সভাপতি ছাড়াও এই কাউন্সিলে রয়েছেন জলসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রকের মন্ত্রী(সহ-সভাপতি), সদস্য হিসেবে রয়েছেন পাঁচ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী, কেন্দ্রের পরিবেশমন্ত্রী, অর্থমন্ত্রী ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রী।

বিশিষ্ট পরিবেশবিদ রবি চোপড়া এ বিষয়ে মতামত প্রদান করতে গিয়ে বলেছেন, বিষয়টি থেকে স্পষ্ট এই কাউন্সিল কোনও কাজের নয়, লোকদেখানো।

ন্যাশনাল ক্লিন গঙ্গা মিশনের অডিট রিপোর্ট পেশের সময় (২০১৭-র ডিসেম্বরে ) ক্যাগ জানায়, নদী পরিষ্কার করার ব্যাপারে যেসব উদ্যোগ নেওয়ার কথা ছিল তা কিছুই হয়নি। এ বিষয়ে বিজেপি নেতা মুরলি মনোহর যোশীও প্রধানমন্ত্রীর কাজে অসন্তোষ প্রকাশ করেছিলেন সেসময়।
গঙ্গার দূষণ ব্যাপকহারে বেড়ে চলেছে। তারপরেও প্রধানমন্ত্রী এ নিয়ে কোনও পদক্ষেপ নিচ্ছেন না কেন, কাউন্সিলের মিটিংয়ে বসছেন না কেন— তা নিয়ে প্রশ্ন উঠলেও পাত্তা দেয়নি সংশ্লিষ্ট মহল ও প্রধানমন্ত্রী নিজেও। প্রয়াত পরিবেশবিদ জিডি আগরওয়াল গঙ্গার পরিস্রুতকরণের প্রক্রিয়া নিয়ে কিছু পরামর্শ দিয়ে মৃত্যুর পূর্বে তিনটি চিঠিও লিখেছিলেন। কিন্তু সেগুলির কোনওটিরই জবাব প্রধানমন্ত্রী দেননি। পরিবেশকর্মী ও গঙ্গা-বিষয়ক বিভিন্ন আন্দোলনের সদস্যদের মতে, তাদের কথাই শোনেন না প্রধানমন্ত্রী। শুধু নাম-কা-ওয়াস্তে এই কাউন্সিল বানিয়ে রেখেছেন গঙ্গার নামে ভোট নেওয়ার জন্য। কাজের কাজ কিছুই করেন না।

Show More

Related Articles

error: Content is protected !!
Close
Close

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker
WhatsApp us