দেশ

গণতন্ত্র বাঁচাও সমাবেশে ধরনায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা

বুধবারের “গণতন্ত্র বাঁচাও সমাবেশে” যোগ দিতে দিল্লি পৌঁছেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বিরোধী দলের নেতাদের এটি একটি অন্যতম সমাবেশে পরিণত হতে চলেছে বলে মনে করা হচ্ছে। গত মাসে ১৯-র ব্রিগেডে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন ২৩ দলের নেতা।
সূত্রের খবর, “সমাবেশ শুরু হবে বিকেল ৩ টেয়।প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী, বর্তমান এবং প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীরা ছাড়াও সংসদীয় দলের নেতারা উপস্থিত থাকবেন।”

দিল্লির অরবিন্দ কেজরিওয়াল এবং অন্ধ্রপ্রদেশের চন্দ্রবাবু নাইডু যন্তরমন্তরে ধরনায় বসবেন।

আপ-এর সমাবেশে বক্তব্য পেশ করার পর সংসদ ভবনেও যাবেন মমতা

সিবিআই এবং কলকাতা পুলিশের সংঘাতের জেরে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ধরনায় বসেছিলেন, সেখানেই বিষয়টিকে দিল্লি নিয়ে যাওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

অন্ধ্রপ্রদেশকে বিশেষ মর্যাদা দেওয়ার দাবিতে ইতিমধ্যেই দিল্লিতে চন্দ্রবাবু নাইডু।সোমবার অনশন শুরু করেছেন তিনি।তাঁর সঙ্গে দেখা করেছেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী, ন্যাশনাল কনফারেন্সের চেয়াম্যান ফারুক আব্দুল্লা, এনসিপি নেতা মজিদ মেমন, তৃণমূল কংগ্রেসের নেতা ডেরেক ও ব্রায়েন, ডিএমকের তিরুচি শিবা এবং সমাজবাদী পার্টির প্রতিষ্ঠাতা মুলায়ম সিং যাদব।

তবে এদের মধ্যে বুধবারের সমাবেশে কারা থাকবেন, তা এখনও জানা যায় নি।কলকাতার সমাবেশে নিজে না গেলেও দলের দুই বর্ষীয়ান নেতা মল্লিকার্জুন খাড়গে এবং অভিষেক মনু সিঙ্ঘভিকে পাঠিয়েছিলেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী।

সমাবেশে যোগ দিয়েছিলেন সমাজবাদী পার্টি প্রতিষ্ঠাতা মুলায়ম সিং যাদব এবং তাঁর পুত্র অখিলেশ যাদব।
আগেরবারের মতোই সমাবেশে গড়হাজির থাকতে পারেন তেলেঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী কে চন্দ্রশেখর রাও, এবং ওড়িশার মুখ্যমন্ত্রী নবীন পট্টনায়েক।

Show More

Related Articles

মন্তব্য করুন

error: Content is protected !!
Close
Close

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker
WhatsApp us