আন্তর্জাতিক

কেরলের ইউসুফ আলি এখন গ্রেট স্কটল্যান্ড ইয়ার্ডের মালিক

বিশেষ প্রতিবেদনঃ এক সময়ের দুনিয়া কাঁপানো লন্ডন পুলিশ স্কটল্যান্ড ইয়ার্ডের নাম শোনেনি এমন কেউ বোধহয় নেই। আর্থার কোনান ডায়ালের শার্লক হোমস সিরিজের দৌলতে ভালোই পরিচিত পেয়েছিল এই দুর্ধর্ষ পুলিশ বাহিনী। এখন সেই খ্যাতি নেই। গঠিত হয়েছে নিউ স্কটল্যান্ড ইয়ার্ড। আর পুরনো সেই হেডকোয়ার্টারের মালিক হয়ে যাচ্ছেন কেরলের এক মুসলিম। অবাক করার মতো হলেও এটাই সত্যি। এক ভারতীয় কোটিপতি ব্যবসায়ী এমএ ইউসুফ আলি কাদের কিনে নিয়েছেন গ্রেট স্কটল্যান্ড ইয়ার্ড। সেূানে তিনি সাত তলা পাঁচতারা লাক্সারি হোটেলও বানিয়ে ফেলেছেন ইতিমধ্যে। গ্রেট স্কটল্যান্ড ইয়ার্ডের নামের শেষে যুক্ত হবে হোটেল শব্দটি। মালিক ইউসুফ আলি।

ইউসুফ আলি আদতে আরব আমিরশাহীর একজন বড় ব্যবসায়ী– বিজনেস টাইকুন বলতে যা বোঝায় আর কি। তিনি যে এই ঐতিহ্যশালী প্রাসাদটি কিনে নিয়ে সংগ্রহশালা বানাবেন না– তা জানাই ছিল। বানিয়ে দিলেন একেবারে পাঁচতারা ঝকঝকে হোটেল। হয়তো সেূানকার গ্রাহকরা রোমাঞ্চিত হবেন দুনিয়াখ্যাত স্কটল্যান্ড ইয়ার্ডের দফতরে রয়েছেন এই ভেবে।
৫৯ বছরের ইউসুফ আলিকে মধ্যপ্রাচ্যের অন্যতম ধনী ব্যবসায়ী হিসেবে গণ্য করা হয়। লুলু গ্র&প ইন্টারন্যাশনালের চেয়ারম্যান তিনি। ২০১৫তে ১০০০ কোটি টাকা দিয়ে মধ্য লন্ডনের হোয়াইটহলের ঐতিহাসিক প্রাসাদটি কেনেন। লাল এডওয়ার্ডিয়ান ইট ও পাথর দিয়ে তৈরি এই প্রাসাদটি একদা লন্ডন শহরের পুলিশের সদর দফতর হিসেবে ব্যবহ*ত হত। ১৮২৯ থেকে ১৯৮০ পর্যন্ত এই বিল্ডিংয়ে ছিল সেই সদর দফতর । আগের বিল্ডিংটিকে পুরোপুরি না ভেঙে সেটাকে অবিকৃত রেূেই তৈরি হয়েছে এই নতুন হোটেল। খরচ পড়েছে ৬৮৫ কোটি। হোটেলটি হায়াত নামে একটি গ্রুপ দ্বারা পরিচালিত হবে। ২০১৯-এর শেষ দিকে এর দরজা অতিথিদের জন্য খুলে যাবে। হোটেলে রয়েছে ২৩৫টি বিলাসবহুল গেস্ট রুম– রেস্তোরাঁ– লাইব্রেরি ও মিটিং রুম। এূান থেকে দেূা যাবে লন্ডনের বাকিংহাম প্যালেস– ওয়েস্টমিনস্টার অ্যাবের মতো বিখ্যাত দর্শনীয় প্রাসাদগুলি।

এমন একটি হোটেলে রাত কাটানোর জন্য অনেকেই স্বপ্ন দেখতে পারেন। কিন্তু তার আগে এক রাতের ভাড়াটা জানবেন না? হোটেল কর্তৃপক্ষ থেকে পাওয়া খবর অনুযায়ী– ৭–৭৯–৮৪২ টাকা খরচ পড়বে প্রতি রাত্রে।

ইউসুফ আলি–যিনি জন্মসূত্রে কেরলের থ্রিসুরের বাসিন্দা জানাচ্ছেন– আমাদের জন্য এই প্রজেক্টটা বেশ সম্মানজনক– কারণ এটা শুধু ব্রিটেন নয়– সারা বিশ্বেই একটি পরিচিত জায়গা ছিল। আমরা এর গৌরব ধরে রাূতে এর কোনও পাথর বদল করিনি। ফলে অতিথিরা বেশ স্মরণীয় অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হবেন এখানে আসলে।
ইউসুফ আলি এমন একজন মানুষ যিনি ধর্ম ও জাতির উর্ধে উঠে সবার পাশে দাঁড়ান মধ্যপ্রাচ্য ও স্বদেশে। নিজের জন্মভূমি কেরলেও তিনি সমাজসেবামূলক বিভিন্ন কাজের সঙ্গে জড়িত। কেরলের ভয়াবহ বন্যাতে তিনি সবচেয়ে বেশি অর্থ সাহায্য করেছিলেন ।

Show More

Related Articles

মন্তব্য করুন

error: Content is protected !!
Close
Close

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker
WhatsApp us