Oops! It appears that you have disabled your Javascript. In order for you to see this page as it is meant to appear, we ask that you please re-enable your Javascript!
Breaking News
Home / আন্তর্জাতিক / ভারত-পাক উত্তেজনার পিছনে বড় ভূমিকা রাখছে ইসরাইল: ব্রিটিশ সাংবাদিক রবার্ট ফিস্ক

ভারত-পাক উত্তেজনার পিছনে বড় ভূমিকা রাখছে ইসরাইল: ব্রিটিশ সাংবাদিক রবার্ট ফিস্ক

ভারতের হিন্দু জাতীয়তাবাদকে উস্কে দিয়ে প্রতিবেশী দেশ পাকিস্তানের সঙ্গে যুদ্ধ লাগিয়ে দেয়ার চেষ্টায় ইসরাইল কলকাঠি নাড়ছে বলে মন্তব্য করেছেন ইংল্যান্ডের বিখ্যাত সাংবাদিক রবার্ট ফিস্ক। রবার্ট ফিস্ক বলেছেন, পাকিস্তান-ভারত উত্তেজনার পেছনে বড় ভূমিকা রাখছে ইসরাইল। নয়াদিল্লীর ওপর ইসরাইলের ক্রমবর্ধমান প্রভাবের ফলেই সম্প্রতি পাক-ভারত সীমান্তে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়েছে। ব্রিটিশ দৈনিক ইন্ডিপেনডেন্টে বৃহস্পতিবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) প্রকাশিত এক নিবন্ধে এ মন্তব্য করেন তিনি।

রবার্ট ফিস্ক লিখছেন, যখন আমি এই সংঘাতের খবর পেলাম, তখন মনে হয়েছিল এটা যেন গাজাতে ইসরাইলি হানাদার বাহিনীর আক্রমণ। এয়ার স্ট্রাইক অন এ ‘টেররিস্ট ক্যাম্প’, বহু ‘টেররিস্ট’ নিহত, জঙ্গিঘাঁটি ধ্বংস হয়েছে, ‘জিহাদি’ ক্যাম্প গুঁরিয়ে দেওয়া হয়েছে–এই সমস্ত শব্দগুলি আমাকে সেরকমই ভাবতে বাধ্য করেছিল। তারপর দেখলাম, না, এটা  বালাকোট।গাজা বা সিরিয়া বা লেবাননে  নয়, এটা পাকিস্তানে। অদ্ভুতভাবে, আমি ভারত আর
ইসরাইলকে গুলিয়ে ফেললাম।এটা একজন কীভাবে করতে পারে!

না, এই ধারণাটিকে একদম ফেলে দিতে পারেন না।পাকিস্তান-ভারত উত্তেজনার পেছনে বড় ভূমিকা রাখছে ইসরাইল। ২৫০০ মাইল দূরত্ব তেল আবিব আর দিল্লির প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের অফিসের মধ্যে। তবু শব্দগুলি এক।

এ্ররপর তিনি তাঁর এই সন্দেহের কারণ ব্যাখ্যা করতে গিয়ে ইদানীংকালে ইসরাইলের সঙ্গে দিল্লির দহরম-মহরমের কথা সবিস্তার উল্লেখ করেছেন। এবং সবচেয়ে বড় যে তথ্যটির উপর তিনি জোর দিয়েছেন, যে, ভারত এখন ইসরাইলের অস্ত্র ব্যবসার সবচেয়ে বড় বাজার।

তিনি আরও বলেছেন, দুই দেশের উত্তেজনা উস্কে দিয়ে ইসরাইল তার অস্ত্র ব্যবসার আরও রমরমা করতে চাইছে। পাশাপাশি ইসরায়েলের ওপর ভারতের নির্ভরতা আরও বাড়াতে চাইছে নেতানিয়াহুর সরকার। উদাহরণ হিসেবে তিনি বলেন, মঙ্গলবার পাকিস্তানের সীমান্তরেখার ওপর চালানো হামলায় ইসরাইলের তৈরি স্পাইস-২০০০ স্মার্ট বম্ব ব্যবহার করে ভারতের বাযুসেনা।  মূলত এ সংঘাতের মধ্য দিয়ে ইসরাইল যে লাভের অংক গুনছে এটি তার পরিষ্কার প্রমাণ।নয়াদিল্লির কাছে আরও অস্ত্র বিক্রির লক্ষ্য নিয়ে কাজ করছে তেল আবিব।
প্রসঙ্গত, ২০১৭ সালে ইসরাইলের অস্ত্রের সবচেয়ে বড় ক্রেতা ছিল ভারত। ইসরাইলি বিমান প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা কিনতে ভারত ব্যয় করেছে ৭০ কোটি ডলার।

তিনি বলেন, ভারতের হিন্দু জাতীয়তাবাদীদের মধ্যে বিদ্যমান মুসলমান বিরোধী চেতনাকে পুঁজি করতে চাইছে ইসরাইল। নয়াদিল্লির কাছে আরও অস্ত্র বিক্রির লক্ষ্য নিয়ে এমনটি চাইছে তেল আবিব। ইসরাইলের বহু ভারতীয় ভক্ত তৈরি হয়েছে ইন্টারনেটে। কারণ, ফিলিস্তিনি মুসলিমদের নাকানিচোবানি খাওয়াচ্ছে বলে তারা তাদের ভালোবাসে।

Check Also

ইসলাম-আতঙ্ক ছড়ানোর ষড়যন্ত্র রুখতে হবে: রুহানি

পুবের কলম ওয়েব ডেস্ক: ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি বলেছেন, কিছু চিহ্নিত পশ্চিমা দেশের পক্ষ থেকে …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

WhatsApp us