আন্তর্জাতিক

বই রয়েছে? তবে টিকিট ছাড়াই ভ্রমণ করুন

ট্রেনে চড়ে যে কোনো জায়গায় যেতে টিকিট লাগবে না। ২৮ মার্চ থেকে পুরো এক সপ্তাহ এ সুবিধা পেলেন নেদারল্যান্ডসের ট্রেনযাত্রীরা। বই পড়ায় উৎসাহ দিতে ১৯৩২ সাল থেকে নেদারল্যান্ডসে শুরু হয় সপ্তাহব্যাপী উৎসব ‘বোকেনউইক’।ডাচ শব্দ ‘বোকেন’-এর অর্থ বই। প্রতিবছর এ উৎসবের অংশ হিসেবে দেশজুড়ে চলে নানা ধরনের সাহিত্য উৎসব। এমনকি প্রিয় বইয়ের পাতায় লেখকের স্বাক্ষরও পেয়ে যান সাহিত্যপ্রেমীরা।

‘বোকেনউইক’-এ নানা সুযোগ-সুবিধাও পাওয়া যায়। কেউ কোনো লাইব্রেরির সদস্য হলে, বিনা মূল্যে একটা বই দেয়া হয়। ‘বোকেনউইক’-এর কথা মাথায় রেখেই বিখ্যাত কোনো লেখক একটা বিশেষ উপন্যাস লেখেন। সেই বইটাই এ সময় নানাভাবে বিনা মূল্যে বিতরণ করা হয় নেদারল্যান্ডসের বাসিন্দাদের।

এ বছর নেদারল্যান্ডসের বিখ্যাত লেখক ইয়ান সিবেলিঙ্কের উপন্যাস ‘ইয়াস ভ্যান বেলফত’ দেশের প্রতিটি ট্রেনেই বিতরণ করা হয়েছে। কোনো যাত্রী যদি ওই বইটা চেকারকে দেখান, তবে তার আর ট্রেনের টিকিট লাগেনি। অর্থাৎ একেবারে বিনা ভাড়ায় ট্রেনের ভ্রমণ।

এই বার্ষিক উৎসবের স্পন্সর হিসেবে এগিয়ে এসেছিল ডাচ রেলওয়ে কোম্পানি। শুধু কি বই বিতরণ, ট্রেনের মধ্যেই ইয়ান সিবেলিঙ্কের বুক রিডি-এর ব্যবস্থাও করেছিল রেল কর্তৃপক্ষ।শুধু ট্রেনেই নয়, নেদারল্যান্ডসের যে কোনো বইয়ের দোকান থেকে সাড়ে ১২ ইউরোতে বই কিনলেই ‘ইয়াস ভ্যান বেলফত’ বিনা মূল্যে পাওয়া গেছে। গোটা বিষয়ে উচ্ছ্বসিত লেখক ইয়ান সিবেলিঙ্ক।ট্রেনে চড়া বুক রিডিংয়ের অভিজ্ঞতা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, যাত্রীদের হাশিখুশি অবাক করা চেহারাগুলো দেখে কী যে ভালো লাগে। গত ১৮ বছর ধরেই এ ধরনের উদ্যোগ নিয়ে চলেছে ডাচ রেল সংস্থাটি।

Show More

Related Articles

error: Content is protected !!
Close
Close

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker
WhatsApp us