প্রবীন সাংবাদিক-লেখক ড. পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের জন্মদিন উপলক্ষে জীবনবাদী দিবস উদযাপিত হল মালদহের উত্তর লক্ষ্মীপুরে।

0
46

নিজস্ব সংবাদদাতা: মোথাবাড়ি: ২৬ অক্টোবর যথোচিত মর্যাদার সঙ্গে প্রবীন সাংবাদিক – লেখক ড. পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের জন্মদিন উপলক্ষে জীবনবাদী দিবস উদযাপিত হল মালদহে। এদিন বিশিষ্ট প্রবীন সাংবাদিক ৮১ বছরে পদার্পন করলেন । জীবনবাদী দিবস উপলক্ষে কালিয়াচক -২ ব্লকের উত্তর লক্ষ্মীপুর হাইস্কুলে ( উ: মা:) এক মহতি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। জীবনবাদী দিবস পালনে উপস্থিত একঝাঁক বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গের উপস্থিতি অনুষ্ঠানে নতুনমাত্রা দান করে। মঞ্চে কেককেটে ও প্রদীপ প্রজ্জ্বলন করে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন উপস্থিত অতিথিগন। মঞ্চ থেকে প্রবীন লেখক পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের দীর্ঘজীবন কামনা করা হয়। উদ্বোধনী সংগীত পরিবেশন করে ছাত্রী নাজনিন আজাদ।স্বাগত ভাষন দেন এদিনের উদ্যোগতা তথা সাংবাদিক রেজাউল করিম। রেজাউল করিম বলেন , গতবছর মালদা শহরে ৮০ তম জন্মদিন পালন করেছিলাম। এবার ও পালন করছি সাংবাদিকদের প্রবীন মষ্টারমশাই ড. পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের শুভ জন্মদিন। তাঁর জন্মদিন জীবনবাদী দিবস হিসেবে পালিত হচ্ছে মালদায়। জীবনকে ভালোবাসো , অন্যের জীবনকে ভালাবাসো। জাতি ধর্ম বর্ন নির্বিশেষে সকলকে ভালোবাসা ও সকলের মঙ্গল কামনা করা হয় জীবনবাদ দিবসে। পার্থবাবু নিজে তার জন্মদিনটি পাঠকদের জীবনবাদী দিবস হিসেবে পালনের কথা বলেন। বহু জীবনবাদী বই লিখেছেন। রাজ্যের মধ্যে সবচেয়ে বেশিবার এসেছেন মালদা জেলায়। আর কালিয়াচকেও অনেকবার এসেছেন।

উত্তরলক্ষ্মীপুর হাই স্কুলের সুবর্নজয়ন্তী উৎসবের উদ্বোধনে এসেছেন । এছাড়াও এই স্কুলে ‘ তথ্যসমৃদ্ধ কালিয়াচক ‘ গ্রন্থের ২য় সংস্করনের উদ্বোধনে এসেছেন পার্থ বাবু। স্কুলের প্রধান শিক্ষক মোহা: এনামুল হক উপস্থিত থাকতে না পারলেও অনুষ্ঠানের সাফল্যকামনা করেন। গত বছর কালিয়াচক গার্লস হাইস্কুলের ৫০ ব্ষপূর্তি উৎসবে ও আলোচনাসভায় যোগদান করেন। স্বাভাবিকভাবে জন্মদিন পালনেএলাকার তরুন, যুবকদের মধ্যে আয়োজনে উৎসাহ ছিল লক্ষনীয়। লেখকের বইয়ে পাঠকরা হতাশা থেকে আলোর দিশা ও প্রেরনা পেয়ে থাকেন। অজস্র গ্রন্থ রচনা করেছেন।সাংবাদিক থেকে সম্পাদক সব নিয়ে সংবাদ জগতের বিভিন্ন শাখায় প্রায় ৫০ বছর ধরে কাজকর্মের অভিজ্ঞতা রয়েছে তাঁর।

পার্থবাবু সম্পর্কে একটি বড় কথা বলেছিলেন প্রেমেন্দ্র মিত্র — তোমার কলমে ইরিডিয়াম নিব লাগানো আছে। তা কখনও ক্ষয় হবেনা। হ্যাঁ তাঁর কলমের কালি আজও শুকোয়নি। আজও নি:শব্দে প্রচারবিমুখ পার্থ বাবু লিখে চলেছেন। এদিন কোলকাতা সল্টলেকের বাড়ি থেকে পার্থবাবু মোবাইলে ভাষন দেন, বলেন জীবদ্দশায় লেখকের জন্মদিন পালন বিরল। আমার জীবদ্দশায় জন্মদিন পালন পাঠকরা করছেন খুব খুশি। এদিন অনুষ্ঠানে উপস্থিত পাঠক দর্শকদের কেক, চা ও বিস্কুট দেওয়া হয়। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন মালদা জেলা প্রাথমিক বিদ্যালয় সংসদ সভাপতি আশিস কুন্ডু, মালদহ সমাচার পত্রিকার সম্পাদক সঞ্জীবকুমার চক্রবর্তী, শিক্ষাবিদ শক্তিপদ পাত্র, কালিয়াচক কলেজের অধ্যক্ষ ড. নাজিবর রহমান, বিশিষ্ট হোমিও চিকিৎসক ডা: আজমাল হোসেন,গৌড়বঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক বিকাশ রায়, কালিয়াচক থানার আইসি সুমন চ্যাটার্জী, মোথাবাড়ি থানার ওসি বাপন দাস, সাউথ মালদা কলেজের অধ্যাপক বিশ্বজিৎ চৌধূরী, আসামের অধ্যাপক প্রভাকর মন্ডল , অনুষ্ঠানের উদ্যোগতা তথা আহ্বায়ক- সাংবাদিক রেজাউল করিম , শিক্ষক , ছাত্রছাত্রী, অন্যান্য অনেকে । এদিনের সভায় সভাপতিত্ব করেন চিকিৎসক আজমাল হোসেন।উপস্থিত সকল অতিথিরা পার্থবাবুর জীবনী, বই, নানা প্রসঙ্গে বিভিন্ন লেখা নিয়ে আলোচনা করেন। রেজাউল করিমের উদ্যোগে ড.পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের জীবনবাদী দিবস উদযাপনের ভূয়সী প্রশংসা করেন অতিথিবর্গ।

Leave a Reply

avatar
  Subscribe  
Notify of