ফাঁকা ঘরের ভিতরে অগ্নিদ? হয়ে মৃতু্য হল চার বছরের এক শিশুর- বেহালা

0
154

(নির্মাল্য সেনগুপ্ত)
কলম প্রতিবেদক ­ বন্ধ ঘরে আগুন লেগে মৃতু্য হল চার বছর বয়সি এক শিশুর। নাম কৌস্তভ রায়। শনিবার সকালে এই মর্মান্তিক দুর্ঘটনাটি ঘটে বেহালার ৪৭ নম্বর বামাচরণ রায় রোডের একটি বাড়িতে। স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে খবর– এই বাড়িতেই ছোট্ট কৌস্তভ ও তাঁর ১০ বছরের মেয়েকে নিয়ে থাকেন পেশায় ট্রাকচালক বিশ্বনাথ রায় এবং তাঁর স্ত্রী মধুমিতা রায়। সংসারে আর্থিক অনটনের কারণে মধুমিতাদেবীও বাড়িতে বাড়িতে পরিচারিকার কাজ করেন। রোজের মতো এ দিনও ট্রাকচালক বাবা বিশ্বনাথ রায় সকাল হতেই কাজে বেরিয়ে যান। মাও কাজ করতে চলে যান। তখন ঘরের মধ্যে তাঁদের দুই ছেলে মেয়ে শুয়েছিল। ১০ বছরের বড় মেয়েও ঘরেই ছিল। প্রতিবেশীরা বলছেন– ভাই ঘুমোচ্ছে দেখে ১০ বছরের দিদি ঘরের বাইরে খেলতে বের হয়। তখন ঘরের দরজা বাইরে থেকে বন্ধ ছিল। তারপরই সকাল সওয়া আটটা নাগাদ অঘটন ঘটে যায়। ঘরের মধ্যেই আগুন লেগে যায়। প্রতিবেশীরা বলছেন– ঘটনার সময় বাড়িতে একাই ছিল কৌস্তভ। তখন ঘরের মধ্যে জ্বলছিল মশা মারার ধূপ। কোনওভাবে সেই ধূপ থেকেই আগুন লেগে যায় ঘরে। টালির ছাদের দরমার বাড়িতে আগুন ছড়াতে বেশি সময় নেয়নি। এই দৃশ্য দেখে প্রতিবেশীরাই সাহায্যের জন্য এগিয়ে আসেন। পাড়ার দুই যুবক টালি ভেঙে ঘরে ঢুকে গিয়ে শিশুটিকে উদ্ধার করে। এদিকে– আগুন লেগেছে দেখে প্রতিবেশীরাই দমকলে খবর দেন। বেহালা থানাতেও খবর যায়। পুুলিশ আসার আগেই অগ্নিদ? শিশুটিকে উদ্ধার করে বিদ্যাসাগর হাসপাতালে নিয়ে যায় স্থানীয়রা। তখনও শরীরে প্রাণ ছিল। কিন্তু হাসপাতাল পৌঁছতেই সব শেষ। শিশুটিকে বাঁচানো যায়নি। চিকিৎসকরা কৌস্তভকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। ততক্ষণে দমকলের দু’টি ইঞ্জিন ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। দমকলের প্রাথমিক অনুমান শর্ট সার্কিট থেকে আগুন লেগে থাকতে পারে। তবে ঘরের মশামারার ধূপ থেকে আগুন লেগেছিল কি না তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এ দিকে এই ঘটনায় গোটা এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here