উসমানীয় খেলাফতের পর প্রথম মসজিদ পাচ্ছেন এথেন্সের মুসলিমরা

0
171

এথেন্স– ১৫ ফেব্র&য়ারি­ এক শতাধীরও বেশি সময় পর গ্রিসের রাজধানী এথেন্সের মুসলিমরা প্রথম সরকার স্বীকৃত মসজিদ পেতে চলেছে। উসমানীয় খেলাফতের পর এই প্রথম এথেন্সের মুসলিমরা কোনও মসজিদ পেতে চলেছে। গ্রিস একদা ছিল অটোমান সাজ্য বা উসমানীয় খেলাফতের অন্তর্গত। সে সময় এথেন্স শহরে মসজিদ থাকলেও ১৮৩৩ সালে উসমানীয় খেলাফতের অবসানের পর থেকে সেখানে স্থায়ী কোনও মসজিদ ছিল না। শতাধীর বেশি সময় ধরে সেখানে এতদিন অস্থায়ী মসজিদই ছিল। বর্তমানে প্রায় ৫লক্ষ মুসলিমের বাস এথেন্সে।
এ ব্যাপারে গ্রিসের উপ-বিদেশমন্ত্রী আইয়োনিস আমানানটিদিস গত বছর গ্রিসের সংসদে বলেছিলেন– এথেন্স হচ্ছে ইউরোপীয় দেশগুলির মধ্যে একমাত্র রাজধানী যেখানে ধর্মীয় উপাসনা স্থল থেকে বঞ্চিত হতে হচ্ছে।
তবে গ্রিসে মুসলিমদের প্রায় ১০০টি অস্থায়ী মসজিদ আছে। অবশ্য এথেন্সে ১০০০ বর্গমিটার জায়গা বিস্ত+ত নতুন মসজিদ আল সালাম-এর নির্মাণ কাজ শেষের পথে। এপ্রিল মাসে তা খুলে দেওয়া হবে মসজিদটি বিস্ত+ত হলেও কোনও মিনার নেই।
গত বছর মে মাসে গ্রিসের প্রধানমন্ত্রী আলেক্সিস সাইপ্রাস ঘোষণা করেছিলেন– মসজিদের অভাব রয়েছে দীর্ঘদিন ধরে।
রাজধানী এথেন্সে মসজিদ নির্মাণের মাধ্যমে মুসলিম বাসিন্দাদের সম্মান জানানো হবে।
এ ব্যাপারে গ্রিস মুসলিম অ্যাসোসিয়েশনের মুখপাত্র ইসলাম গ্রহণ করা গ্রিক আন্না স্তামউ বলেছেন– গ্রিসের নতুন প্রজন্মের কাছে মসজিদ খুবই প্রয়োজন। বিশেষ করে যুবকদের যারা সমাজে মূল্যবোধ– সাম্য তৈরি করবে।
এথেন্সে মসজিদ নির্মাণ শুরু নিয়ে গ্রিসের সংসদে একটা আইন পাস হয়েছিল ১৮৯০ সালে। কিন্তু তা কার্যকর না হলেও ২০০৪ সালে অলিম্পিকের সময় তা আরও একবার কার্যকরের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। কিন্তু পরবর্তীতে সাইপ্রাসের দক্ষিণপন্থী শরিক দল মসজিদের নির্মাণ কাজ দ্রুত শেষ করার বিরোধিতা করে। তাদের আপত্তি মসজিদ নির্মাণের জন্য ৮ লক্ষ ইউরো খরচ করা যাবে না। এত কিছুর পরও এথেন্সে পাকাপাকি মসজিদ পাচ্ছেন এপ্রিলে। আর তা হবে উসমানীয় খেলাফতের পর এথেন্সবাসীদের প্রথম স্বীকৃত মসজিদ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here