ইসলাম ভীতি রুখতে কানাডা সরকারের পদক্ষেপের আর্জি মুসলিমদের

0
166


আটওয়া– ১০ ফেব্র&য়ারি­ মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সাতটি মুসলিম প্রধান দেশের নাগরিকদের আমেরিকায় প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারির পর অনেককে ইসলাম-বিদ্বেষকে উৎসাহিত করেছিল। তার জেরে এক ট্রাম্প সমর্থক কানাডার কিউবেকের একটি মসজিদের আক্রমণ চালায়। ওই ঘটনায় ৬জনের মৃতু্যসহ কমপক্ষে ১৯জন গুরুতর আহত হয়েছিল। সেই ঘটনার পর কানাডার মুসলিমরা এবার সে দেশের সরকারের কাছে আর্জি জানিয়েছে যারা জাতি বিদ্বেষ ছড়াচ্ছে তাদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য।
যদিও কিউবেক মসজিদে হামলাকারী ফরাসিভাষী কানাডিয়ান ২৭ বছরের আলেকজান্ডার সিনেটের বিরুদ্ধে হত্যার অভিযোগে ট্রায়াল চলছে।
তবু কানাডার মুসলিমদের মন থেকে ভয় দূর হচ্ছে না। কানাডায় খ্রিস্টানদের পর দ্বিতীয় বৃহত্তম সম্প্রদায় হল মুসলিমরা। তাই কিউবেক শহরে ইসলামিক কালচারাল সেন্টারের মসজিদে হামলার ঘটনা কানাডার সমাজে ইসলাম ভীতি হিসেবে মনে করা হচ্ছে।
গত বুধবার কানাডিয়ানদের নিয়ে গঠিত কিউবেকভিত্তিক এক মুসলিম সম্মিলিত সংগঠন এ নিয়ে এক সাংবাদিক সম্মেলন করে। ওই সাংবাদিক সম্মেলনে কানাডা সরকারের প্রতি একটি খোলা চিঠি প্রকাশ করা হয়। ওই চিঠিতে কানাডায় যে কোনও ধরনের জাতিবিদ্বেষ এবং মুসলিমদের বিরুদ্ধে বৈষম্য সৃষ্টিকারীদেরকে কড়া হাতে দমন করার আর্জি জানানো হয়েছে।
সম্মিলিত সংগঠনগুলির নেতৃত্ব দেওয়া দ্য ন্যাশনাল কাউন্সিল অব কানাডিয়ান মুসলিম চাইছে– হাউজ অব কমন্সের স্ট্যান্ডিং কমিটি কানাডার ঐতিহ্য রক্ষায় একটি সমীক্ষা করুক। ওই সমীক্ষায় বিভিন্ন জাতিবিদ্বেষের ঘটনা সংবলিত তথ্য ফুটে উঠবে। এর ফলে ইসলামভীতি ও জাতি বিদ্বেষ দূর করতে কানাডা সরকারের পদক্ষেপ নিতে সুবিধা হবে।
এ বিষয়ে কানাডার মুসলিম নেতারা এক সুপারিশ করেছেন কানাডা সরকারের কাছে। তারা বলেছেন কিউবেক সহ ১০টি প্রদেশে হাইস্কুলগুলির পাঠ্যসূচিতে জাতিবিদ্বেষ ও বর্ণবিদ্বেষ এবং ইসলাম ভীতি নিয়ে কানাডা সমাজের ভূমিকা অন্তর্ভুক্তি করা দরকার।
জানা গেছে– ২০১২ সালে মুসলিমদের বিরুদ্ধে জাতি বিদ্বেষের ঘটনা ঘটেছিল ৪৫টি। কানাডা পুলিশ বলছে ধর্মবিদ্বেষের ঘটনা ২০১৪ সালে বেড়ে হয়েছে ৯৯টি।
অন্যদিকে– কানাডা আরব ফেডারেশনের কার্যকরী সভাপতি মুহাম্মদ বাউদজেনানে বলেছেন– কানাডা সরকারের উচিত যেসব কানাডাবাসী মার্কিন যুক্তরাষ্টেÉ সফর করবে তাদের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here