আগুনে পুড়েছে বইখাতা– জামাকাপড় সহপাঠীদের সহযোগিতায় পরীক্ষায় বসছে হাইমাদ্রাসা পরীক্ষার্থী সোনালি

0
160

ইনামুল হক– বসিরহাট
জীবনের প্রথম বড় পরীক্ষার সময়ে বড়সড় দুর্ঘটনার মুখোমুখি হতে হবে জানা ছিল না সোনালি খাতুনের। সোমবার শুরু হয়েছে এ বছরের মাদ্রাসা বোর্ডের হাইমাদ্রাসার মাধ্যমিক– উচ্চমাধ্যমিক– উচ্চমাধ্যমিক ও সিনিয়র মাদ্রাসার আলিম– ফাজিল পরীক্ষা। মঙ্গলবার মিনাখার দক্ষিণ বারগা গ্রামের বাড়ি থেকে পরীক্ষাকেন্দ্রে বের হয়েছিল এ বছরের হাইমাদ্রাসার মাধ্যমিক পরীক্ষার্থী সোনালি খাতুন। খবর পেল– বাড়িতে কয়েক মুহূর্তের মধ্যেই ঘটে গিয়েছে এক ভয়াবহ আগুন লাগার ঘটনা। কীভাবে আগুন লাগল– বুঝে ওঠার আগেই পর পর জ্বলে যায় আটখানা আস্ত ঘর। অধিকাংশই দরিদ্র পরিবার। পুড়েছে সোনালিদের দরমার বেড়া– আসবাবপত্র– জামাকাপড়– এমনকী বইখাতাও।
পেশায় দিনমজুর আবুল মোল্লার মেধাবী কন্যা সোনালির পরিবারের সদস্যরা ঘরের বাইরে বেড়িয়ে আসতে পারলেও নিতে পারেনি তার অন্যান্য পরীক্ষার বইখাতা– স্কুল ইউনিফর্ম। প্রতিবেশীদের চেষ্টায় ঘণ্টা দু’য়ের মধ্যে আগুন আয়ত্তে এলেও পুড়ে শেষ সব কিছু। কিন্তু আগুন পোড়াতে পারেনি সোনালির অদম্য জেদকে। দ? মনে সে পরীক্ষা দিতে চলে যায় মিনাখার ছয়ানি ইসলামিয়া সিনিয়র মাদ্রাসার কেন্দ্রে। নাড়াবুনিয়া সুন্দরবন এইচএমটিএ হাইমাদ্রাসার এই ছাত্রীটি সহপাঠীদের সহযোগিতায় পরীক্ষা দিচ্ছে। আশ্রয় নিয়েছে গ্রামের এক ফুফু নাজমা বিবির বাড়িতে। সহপাঠী বন্ধু আনোয়ারা– মুসলিমারা পালা করে পড়ার বই দিয়ে সাহায্য করছে। সোনালির এই অদম্য ইচ্ছার প্রশংসা করেছেন তার পরীক্ষাকেন্দ্র ছয়ানি ইসলামিয়া সিনিয়র মাদ্রসার শিক্ষক ইউনুস আলি বৈদ্য। সোনালির সাফল্য কামনা করে তিনি বলেন– বিপদে ভয় না পেয়ে সব বাধাকে তুচ্ছ করে এগিয়ে যাওয়ার এক দৃষ্টান্ত গড়ল সোনালি। বুধবার ছিল ইংরেজি পরীক্ষা। ভালো হয়েছে। পরের পরীক্ষাগুলোও ভালোভাবে দেবে আশাবাদী সোনালি। সে জানায়– এই মুহূর্তে বাড়িতে থাকার জায়গা নেই। নেই প্রয়োজনীয় খাবারও। বাধ্য হয়ে গ্রামের ওই আত্মীয়ের বাড়িতে থাকতে হচ্ছে। তিন পুত্র ও ছয় কন্যার পঞ্চম সোনালি। বড়ভাই বিবাহিত। আর ভাইবোনেরা পড়াশোনা করছে। বাবা মহম্মদ আবুল হোসেনের কপালে এখন চিন্তার ভাঁজ। মেয়েটির পরীক্ষার সময়ে এমন আগুন লাগার ঘটনা ঘটবে কে জানে? সোনালির পাশে দাঁড়িয়ে সাহায্য করলে হয়তো তার জীবনের ভিত তৈরির এই প্রথম পরীক্ষাটা আরও সহজ হয়ে যেত।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here