বাঁকড়া জামে মসজিদ

0
154

আনোয়ার হোসেন
গ্রামের বিশিষ্টজনদের উদ্যোগে হাওড়া-আমতা রোডে বাঁকড়া বাজারে ১৯৭৫ সালে গড়ে ওঠে বাঁকড়া জামে মসজিদ। মসজিদের একটি অস্থায়ী চালঘরের পিলার গাঁথা আরম্ভ হয় ১৯৭৮-এ। প্রথম জুম্মা নামায অনুষ্ঠিত হয় বাংলা ২ কার্তিক ১৩৮৫। এরপর থেকে কয়েক বছর পাঁচ ওয়াক্ত জামাতসহ নামায পড়া শুরু হয়। ১৯৭৯ সালের ২২ জুন– শুক্রবার মসজিদ কমিটির উদ্যোগে ওয়াজ মহফিলের আয়োজন করা হয়। মহফিলে প্রধান বক্তা ছিলেন ফুরফুরা শরীফের জনাব ছোট হুজুর কেবলা। সেদিন বাঁকড়া জামে মসজিদের পাকা ইমারত তৈরির ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন তিনি। প্রতিবছর তাঁর ভিত্তিস্থাপন স্মরণ করে আরবি মাসের ২৬ রজব (শহর মেহরাজের রাতে) আজও মিলাদ মহফিল অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে।
মসজিদের জন্য যাঁরা জায়গা দান করেছিলেন আজ তাঁরা অনেকেই জীবিত নেই। বাঁকড়া বাজার সংলগ্ন রোডের পাশে মূল্যবান সম্পত্তি নিঃস্বার্থভাবে দান করেছিলেন মুহাম্মদ হোসেন মোল্লা– আবুল আলিম মোল্লা– সেূ মুসা আলি– সফিয়র রহমান মোল্লা প্রমুূ ব্যক্তিগণ। বর্তমানে পরিচালন কমিটির সাধারণ সদস্য কবি ও সাহিত্যিক হাজী সেূ ফিরোজউদ্দিন আহমেদ এবং হাজী সফিয়র রহমান। মসজিদটির সমগ্র প্রায়োজনীয় কাজকর্ম স্বেচ্ছায় দেূভাল করেন সেূ হাসান সরোআদ্দী। বর্তমানে মসজিদের ইমামের দায়িত্বে আছেন মৌলানা মুফতি হাসিবুর রহমান। দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলার মিনাখার অধিবাসী গত তিন বছর ধরে তার দায়িত্ব পালন করে চলেছেন। গত ছ’বছর ধরে মোতাওয়াল্লি আছেন হাজী মণিরুদ্দিন সর্দার। মোয়াজ্জেন আছেন ২৪ পরগনা জেলার বেলুনি টুলারহাটের এমদাদুল হালদার। মসজিদটির স্থাপত্য– শিক্ষা এবং কারুকার্যের সঙ্গে জড়িয়ে আছেন বাঁকড়ার মতি ইঞ্জিনিয়ার। সুলতানি এবং মোগল শাসন আমলের ইন্দো-ইরানীয় স্থাপত্যের ধারা আজও ূণ্ডিত ভারতে অম্লান হয়ে আছে তা বাঁকড়া জামে মসজিদটি দেূলে বোঝা যায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here