চোখ পিটপিট করে স্পিনারদের গ্যালারির বাইরে ফেলে দিত সৌরভঃ সেহওয়াগ

0
146

নয়াদিল্লি– ৩ ফেব্র&য়ারিঃ মাঠের বাইরে যেমন ভালো সম্পর্ক ছিল– একইভাবে মাঠের মধ্যেও তাঁদের দু’জনের মধ্যে বোঝাপড়া ছিল দারুণ। টিম ইন্ডিয়ার দুই প্রাক্তন ওপেনার ব্যাটসম্যান সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় এবং বীরেন্দ্র সেহওয়াগের ব্যাটিং তাণ্ডবের ওপর ভর করে একের পর এক ম্যাচে রানের পাহাড়ে পৌঁছে গিয়েছিল দল। ব্যাট হাতে এই দু’জনের হার না মানার জেদ দলকে বহুবার ডুবন্ত অবস্থা থেকে বাঁচিয়েছে। ক্রিকেটের মূলস্টেËাত থেকে এই দু’জন এখন অনেকটা দূরে থাকলেও মনের দিক থেকে তাঁরা আজও রয়েছেন আগের মতো। এ দিনের একটি মজার ঘটনায় যেটা আবারও প্রমাণ হল। সোশ্যাল নেটওয়ার্ক সাইটে এ দিন নজফগড়ের নবাব বীরু মজা করলেন তাঁর প্রিয় ক্রিকেটার সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের সঙ্গে। যদিও সেই মজার মধ্যেই মহারাজকে প্রশংসায় ভরিয়ে দিতে কার্পণ্য করলেন না ভারতের সর্বকালের সেরা এই মারকুটে ক্রিকেটারটি।
ক্রিকেটের মাঠে ধারাভাষ্য দেওয়ার পাশাপাশি বর্তমান সময়ে সোশ্যাল নেটওয়ার্ক সাইটের সঙ্গে বেশ জুড়ে থাকতে দেখা যায় তাঁকে। মাঠে কেউ ভালো পারফরম্যান্স করলে– তাঁকে প্রশংসায় ভরিয়ে দেওয়ার পাশাপাশি সোশ্যাল নেটওয়ার্ক সাইটে নানান বিষয়ে বক্তব্য রাখতে গিয়ে নানান সময়ে মজা করতে দেখা গিয়েছে সেহওয়াগকে। এবার টু্যইটারেû মজা করলেন তাঁর প্রিয় ক্রিকেটার সৌরভকে নিয়ে। টু্যইটারে এ দিন নিজের অ্যাকাউন্টে দু’টি পাণ্ডার ছবি আপলোড করেন। ওই ছবিতে একটি পাণ্ডার চোখ বড় এবং অন্যটিতে ছোট চোখের পাণ্ডা দেখা যায়।প্রথম ছবির ক্যাপশনে লেখা– ‘দাদা গাঙ্গুলি’ অন্য ছবির নীচে লেখা ছিল– ‘চাইনিজ গাঙ্গুলি’। তার আগে একটা জায়গায় লেখা– ‘একজন মানুষের চোখ থেকে চশমা খুলে নিলে কী অবস্থা হতে পারে– সেটা একবার দেখে নিন।’ তারûপর বড় অক্ষরে লেখেন– ‘রাজপুত্রের একটি দুর্দান্ত স্মৃতি। প্রথমে চোখ পিটপিট করত সৌরভ। তারপর সে স্পিনারদের মেরে স্টেডিয়ামের বাইরে ফেলে দিত।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here