হেটেলের ওয়েটারের টিপস নিয়ে সাফল্য পান শচীন

0
143

মাস্টার ব্লাস্টারের কাছে টিপস নিতে ছুটে আসেন বিরাট কোহলি থেকে শুরু করে বর্তমান বিশ্বের তাবড় ক্রিকেটার। কিন্তু জানেন কি শচীন নিজে কার কাছ থেকে টিপস পেয়েছিলেন নিজের ব্যাটিং স্টান্স বদলাবার? শুনলে চমকে যেতে হয়। কিন্তু এটা সত্যি। কোনও একটি ম্যাচ খেলার জন্য ভারতীয় দল তখন চেন্নাইয়ে। যে হোটেলে শচীনরা ছিলেন– সেই হোটেলের এক ওয়েটার একটা সময় হঠাৎ মাস্টার ব্লাস্টারের কাছে হাজির হলেন তাঁর কাছ থেকে কিছু জানার জন্য। এসেই হঠাৎ শচীনকে বললেন– ‘আপনাকে একটা কথা বলব যদি কিছু মনে না করেন। আপনার ব্যাটিং টেকনিকে অনেক পরিবর্তন আসতে পারে– যদি আপনি একটা জিনিস ফলো করেন। সেটা হল আপনার এলবো গার্ডের ডিজাইনটা পরিবর্তন করে আপনি একটু ভালো করে ব্যবহার করুণ। তাতে বল এসে আপনার ব্যাটে ভালো সুইং করতে পারে।’ শচীন সেটা ফলো কবেছিলেন। আর সত্যি বলতে কি এই টিপসটা শচীনকে যে কী কাজ দিয়েছিল– সেটা মাস্টার ব্লাস্টার নিজের মুখেই স্বীকার করছেন। তিনি বলেন– ‘আমি এটা ফলো করেছিলাম। অচিরেই দেখলাম ব্যাটটা ভালোই হচ্ছে। রানও পাচ্ছি। টেকনিকেও উন্নতি হচ্ছে। সেই হোটেলের ওয়েটার আমাকে যে পরামর্শ দিয়েছিল সেটা একশো শতাংশ সঠিক। তিনি যেভাবে পরামর্শ দিয়েছিলেন সেইমতো এলবো গার্ডের ডিজাইনটাই পরিবর্তন করে ফেলি। প্রথম প্রথম একটু অসুবিধে হচ্ছিল। ব্যাপারটা বেশ অস্বস্তিকর লাগছিল। কিন্তু ধীরে ধীরে সেটার সঙ্গে মানিয়ে নিলাম। বুঝতেও পারিনি– যে এই পরিবর্তন করে এতটা সাফল্য পাব। হয়তো কয়েকটা দিন সময় লেগেছে। কিন্তু আল্টিমেট সাফল্যটা পেয়েছি। নতুন করে নিজের স্ট্যান্সটাও পালটাতে পেরেছিলাম। আর সেই কারণেই সাফল্যটাও এসেছে।’
শচীন বলছেন পরবর্তীকালে নাকি আইপিএলের সময় ডাওয়েন ব্র্যাভো ও কায়রন পোলার্ডও এ বিষয়ে তাঁর কাছে জানতে চেয়েছিলেন। এমনকী ব্র্যাভোও তাঁকে একটা আইডিয়া দিয়েছিলেন ড্রেসিং রুমে বসে। শচীন বলছেন– ‘ওরাও আমায় আইডিয়া দিয়েছিলেন। কিন্তু হোটেলের ওয়েটারের এই আইডিয়াটা ওদের কাছে বেশ মজার লেগেছিল। ওরা এই আইডিয়াটা শুনে প্রথমে তো হেসে গড়িয়ে গিয়েছিল। পরে অবশ্য ধাতস্থ হয়ে ওরা হাসি আর আড্ডায় মেতে ওঠে।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here